আর্থিক স্বচ্ছলতা অর্জনে ডোমেইন ইনভেস্টমেন্ট

৭ম অধ্যায়: ডোমেইন নাম আফটার মার্কেট

By অক্টোবর 15, 2019 #!31বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000p1931#31বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000p-8+00:003131+00:00x31 02অপরাহ্ন31অপরাহ্ন-31বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000p8+00:003131+00:00x312020বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000318311অপরাহ্নবৃহস্পতিবার=946#!31বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000p+00:001#জানুয়ারী 2nd, 2020#!31বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000p1931#/31বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000p-8+00:003131+00:00x31#!31বৃহস্পতি, 02 জানু. 2020 20:31:19 +0000p+00:001# No Comments

ডোমেইন থেকে আয় করার আরও একটি উপায় হলো অল্প দামে একটি ডোমেইন কিনে নিয়ে উচ্চতর দামে বিক্রি করা (Re-sell) ।

আপনি ১০ ডলারে একটি ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করে পরে কারো কাছে বিক্রি করতে পারবেন এমন আশা করে এটি ধরে রাখতে পারেন। হয়তো ২/৩ কয়েক বছর পর কেউ আপনার কাছে তাদের ব্যক্তিগত প্রজেক্ট বা ব্যবসায়ের জন্য নামটি চাইবে। ধরুন তারা আপনাকে ৩০০ ডলার অফার করলো। আপনি যেহেতু ৩ বছরে ৩০ ডলার বিনিয়োগ করেছিলেন তাই আপনি এটি বিক্রি করে দিতে চাইলেন। তাতে আপনার ২৭০ ডলার থাকলো। দুই/তিন বছরে মাত্র কয়েক ডলার এর বিপরীতে এমন রিটার্ন কিন্তু কম নয়।

ডোমেইন নেম আফটার মার্কেট, বা সেকেন্ডারি মার্কেট অর্থোপার্জনের এক দারুণ জায়গা। এখানে আপনি বারবার উপার্জনের সুযোগ পাবেন না কিন্তু এটি একবারে আপনাকে বড় একটা রিটার্ন দিতে পারে। আপনি নামটি "পার্ক" করে রেখে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আয় করতে পারেন কিন্তু রিসেল করার উদ্দেশ্যেই যদি আপনি এটি কিনে থাকেন তাহলে পার্কিং গুরুত্বপূর্ণ না। এইক্ষেত্রে ট্র্যাফিক ডোমেইনের মূল্য নির্ধারণে ভূমিকা রাখতেও পারে আবার নাও রাখতে পারে। বরং এর স্বকীয়তা বা ব্র্যান্ডাবিলিটি বেশি মূল্যবান। উদাহরণস্বরূপ,“green living” বা “green Homes” এখনও খুব পরিচিত না হলেও এগুলি বেড়েই চলেছে; সুতরাং, GreenHomeLoans.com এর মান বাড়তে পারে।

একইভাবে, ভূ-কেন্দ্রিক কোনো ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করাও ভালো উপায় হতে পারে যদি ভৌগলিক জায়গাটি উন্নয়নশীল হয়। উদাহরণস্বরূপ: নিউ হ্যাম্পশায়ারে একটি ছোট সমুদ্র সৈকত রয়েছে, এবং সেখানকার সমস্ত কিছুর নামের সাথে seacoast শব্দটি আছে । উদাহরণস্বরূপ, "SeacoastAirport.com" ডোমেইনটি Skybus air Service চালু করার অনেক আগেই নিবন্ধিত হয়েছিল। এখন সত্যিকার অর্থেই সেখানে একটি Seacoast Airport রয়েছে যার অর্থ সেই সাধারণ ডোমেইন নামটি আগের মূল্যের চেয়ে অনেক বেশি মূল্যবান হয়ে গেছে।

আপনি এটিকে গ্রামাঞ্চলে এক টুকরো জমি কেনার সাথে তুলনা করতে পারেন। একদিন তার কাছের শহর বড় হতে পারে এবং কোনো ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি আকর্ষনীয় “শহরতলী” বানানোর জন্য এই জমিটি কিনতে চাইতে পারে। এক্ষেত্রে ভালো লাভ করতে হলে ডেভেলপমেন্ট হওয়ার আগেই জমি কিনতে হবে। অন্য কথায়, আপনি সাধারণ রেজিস্ট্রেশন ফি দিয়ে বা অন্য দামে অন্য কারো কাছ থেকে ডোমেইন কিনে নিলেন আর কয়েক বছর অপেক্ষা করে সুযোগমতো ৩০ গুন বেশি দামে বিক্রি করে দিলেন। লোভনীয়, তাই না?

উপরেরটি যদি এতই সহজ হয় তবে কেন সবাই তা করে না? রেজিস্ট্রার্ড বেশিরভাগ ডোমেইনের কখনোই কোনো মূল্য থাকে না কারণ এগুলো কেউ চায় না। আন্দাজে নিজের মতো তৈরি করা অধিকাংশ ডোমেইনেরই কোন গুরুত্ব থাকে না। কখনো কখনো ক্রেতা প্রাইস অফার করলে তা বিক্রেতার মনমতো হয় না আবার এর চেয়ে অধিক খরচ করাও ক্রেতার পক্ষে লাভজনক মনে হয় না। এমনক্ষেত্রে অনেক সময়ই ঐ ডোমেইনটি আর কখনোই বিক্রি হয় না বা আগের দামের চেয়ে অনেক কম দামে বিক্রি করে দিতে হয়।

মনে রাখবেন, যদি কোনো ডোমেইন নাম কখনোই বিক্রি না হয় এবং আপনি তা চিরকালের জন্য ধরে রাখেন তা শেষ পর্যন্ত বোঝা হয়ে দাঁড়ায়।

. . আপনাকে ডোমেইন বিক্রি করার সঠিক সময় খুঁজে বের করতে হবে। আমি যখন ডোমেইন বিক্রয় করি তখন আমি এটির বর্তমান বাজারের পারফরম্যান্স খেয়াল করে দাম নির্ধারণ করি এবং যে কিনতে চাচ্ছে তার ব্যাপারে খোজ নেই। যদি আপনার ডোমেইন নামটি কোন small niche market এর হয় আর ঐ ইন্ডাস্ট্রির সবচেয়ে বড় ব্যাবসায়ী ভালো প্রাইসে ডোমেইনটি কিনতে চায় আর তাহলে আপনার অবশ্যই বিক্রি করে দেয়া উচিত কারণ এত দামে হয়তো আপনি আর কখনোই বিক্রি করার সু্যোগ পাবেন না। স্টক মার্কেটের মতো একটি ডোমেইন বিক্রয় করারও উপযুক্ত সময় থাকে।

অনেক ডোমেইনারদের সমস্যা হলো তারা লোভী হয়ে যায় কিন্তু পরে আর কখনোই ভালো অফার পায় না। আমি ফোরামে একাধিকবার দেখেছি লোকদের পূর্বের চেয়ে কম দামে নাম বিক্রি করে দিতে কারণ তাদের তখন অর্থের প্রয়োজন। তারা অতীতে ভালো ভালো অফার প্রত্যাখ্যান করেছিল এবং এখন আর্থিক দূরাবস্থায় থাকায় খুব কম দামে বিক্রি করে দিয়েছে।

কিছু ডোমেইনারদের আরেকটি বড় সমস্যা হলো তারা ডোমেইন বিনিয়োগকারী না হয়ে ডোমেইন সংগ্রহকারী হয়ে ওঠে। একজন সংগ্রাহক খুব বেশি গবেষণা ছাড়াই কেবল নিজের ইচ্ছামতো ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করে এবং ভবিষ্যতে সেগুলি মূল্যবান হবে বলে আশা করে। অথচ একজন ডোমেইন ইনভেস্টর প্রচুর গবেষণা করে এবং মার্কেট রিসার্চ করার পরে মূল্যবান নাম খুঁজে বের করে।

বর্তমানে (বই লেখার সময়), একটি বড় সমস্যা আমি দেখতে পাচ্ছি যে প্রচুর উদীয়মান ডোমেইনাররা ১০০ টার মতো .info এর রেজিস্ট্রেশন করছে কারণ তা ৯৯ সেন্ট দিয়েই রেজিস্ট্রেশন করা যাচ্ছে। কেবলমাত্র তারা সস্তা বলেই ১০০ টি রেজিস্ট্রেশন করা উচিত নয়। বরং $১০০ দিয়ে ভালো ১টা ডোমেইন নেয়া উচিত। দুইটি দিক দেখুন: প্রথমত, সেই ভাল ডোমেইন রিনিউ করতে আপনার বছরে প্রায় ১০ ডলার লাগবে। আর যদি ১০০ টি রিনিউ করতে হয় তাহলে প্রতিটার জন্যই রিনিউ ফি $১০ ডলার লাগবে। মনে রাখবেন, প্রথম বছরের রেজিস্ট্রেশন ফি কম কিন্তু রিনিউ ফি নয়। আবার ১০০ টি সাধারণ ডোমেইনের চেয়ে ১টি ভালো ডোমেইন ম্যানেজ করা সহজ।

এটি সত্য যে আপনি এর মধ্যে কয়েকটি ডোমেইন ভালোভাবে বিক্রি করতে পারেন কিন্তু এতে অনেক বেশি সময় লাগবে। মনে রাখবেন, ১০০ টি খারাপ ডোমেইনের চেয়ে ১ টি ভাল ডোমেইন রাখা অনেক ভালো। কোয়ালিটি ডোমেইন ভাল বিক্রি হয়, কেউ অনেকগুলো খারাপ ডোমেইন কেউ কিনতে চায় না।

bn_BDবাংলা
Share This

Share This

Share this post with your friends!